আজঃ শুক্রবার ● ২৯শে চৈত্র ১৪৩০ ● ১২ই এপ্রিল ২০২৪ ● ২রা শাওয়াল ১৪৪৫ ● বিকাল ৩:০৯
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

ওসি প্রদীপ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে ৪ কোটি ৮১ লাখ ৮ হাজার ৮১০ টাকা অবৈধ সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুদক

ফাইল ছবি

টেকনাফ থানার সদ্য বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

রোববার (২৩ আগস্ট) বিকেলে সাড়ে ৩টার দিকে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) জেলা সমন্বিত কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, ওসি প্রদীপ ও তার স্ত্রী চুমকি কারণের বিরুদ্ধে ৪ কোটি ৮১ লাখ ৮ হাজার ৮১০ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের খোঁজ পেয়েছে দুদক।

এছাড়া দুর্নীতি দমন কমিশনে দাখিলকৃত তাদের সম্পদ বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকার সম্পদ অর্জনের তথ্য গোপন করে তারা। একইসঙ্গে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনেরও অভিযোগ তোলা হয় তাদের বিরুদ্ধে। এসব সম্পদ তাদের জ্ঞাত আয়ের উৎসের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ।

মামলায় দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪-এর ২৬(২)/২৭(১), মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ৪(২), ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারা সহ দণ্ডবিধির ১০৯ ধারায় অভিযোগ আনা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে দুর্নীতি দমন কমিশন জেলা সমন্বিত কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন বলেন, ‘টেকনাফ থানার সাবেক ওসির প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকি কারণের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকা সম্পদ অর্জনের তথ্য গোপন করে তথ্য প্রদান এবং ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকাসহ মোট ৪ কোটি ৮১ লাখ ৮ হাজার ৮১০ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘তদন্তকালে এই মামলায় অবৈধ সম্পদের সঙ্গে সম্পৃক্ত অন্যকারও জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন