আজঃ শুক্রবার ● ২৯শে চৈত্র ১৪৩০ ● ১২ই এপ্রিল ২০২৪ ● ২রা শাওয়াল ১৪৪৫ ● রাত ৯:১৬
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

ঢাবির ছাত্রের স্বপ্ন শেষ হতে চলেছে প্রতিবেশীর মিথ্যা মামলায়

ফাইল ছবি

চৌগাছা প্রতিনিধিঃ যশোরের চৌগাছায় বাড়ির দুই পাশের দুই প্রতিবেশীর হিংসায় একের পর এক মিথ্যা মামলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের ৪র্থ বর্ষের এক মেধাবী ছাত্র ও তার পরিবারের ভবিষ্যৎ স্বপ্ন শেষ হতে বসেছে।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, উপজেলার ফুলসার ইউনিয়নের আঁফরা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত বিমান বাহিনী কর্মচারী নুরুল আমিনের ছোট ছেলে সাইফুল ইসলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। সে ঢাবির বিজয়-৭১ হলের বি’ ব্লকের জে-৪০১১ রুমের আবাসিক ছাত্র। সম্প্রতি তার ৬ষ্ঠ সেমিস্টারের ফলাফল প্রকাশ হয়েছে। তাতে সে ৩.৭৫ স্কোর করে উত্তীর্ণ হয়েছে। আর সাইফুলের বড় ভাই রমজান আলী যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজের (এমএম কলেজ) মাস্টার্সের শিক্ষার্থী।

অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রতিবেশী জীবনীনেছা নামে এক নারী যশোর জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট, চৌগাছা আমলী আদালতে ২০১৪ সালের ২৪ মার্চ একটি মামলা করেন। তাতে তিনি অভিযোগ করেন পূর্ব শত্রুতার জেরে ৬ই মার্চ বেলা ১১টায় সাইফুল তার ভাই রমজান ও বৃদ্ধ পিতা প্রতিবেশী জীবনীনেছার ঘরে প্রবেশ করে আলমারী ও শোকেস ভেঙে ৩০ হাজার টাকার ক্ষতি করে এবং তার শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। অথচ ওই দিনই (৬মার্চ) সাইফুল চৌগাছা শহরের পরীক্ষা কেন্দ্রে এসএসসি’র সমাজ বিজ্ঞান পরীক্ষা দিচ্ছিল। আর তার ভাই রমজান তাকে পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়ে যায়। মামলায় এও বলা হয় তারা নাকি লোহার রড, বাঁশের লাঠিসহ বিভিন্ন অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ওই ভিক্ষুক (প্রকৃতপক্ষে মাদকব্যবসায়ী ও সুদে কারবারি) নারীর ঘরে প্রবেশ করে।

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন