আজঃ রবিবার ● ৮ই বৈশাখ ১৪৩১ ● ২১শে এপ্রিল ২০২৪ ● ১১ই শাওয়াল ১৪৪৫ ● দুপুর ১:৫৮
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

দলীয় পদ পেতে সনদ জাল

ফাইল ছবি

নিউজ ডেস্কঃ জাল সনদ, বিবাহিত এবং বির্তকিতদের দিয়ে গঠন করা হয়েছে সিলেট সদর উপজেলা ছাত্রদলসহ জেলার ৩২টি ইউনিট কমিটি। এর মধ্যে সিলেট সদর উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়কের নাগরিক সনদ ও একাডেমিক সনদের সঙ্গে নিজের ও বাবা-মা কারো নামেরই কোনো মিল নেই। অভিযোগ উঠেছে দলীয় পদ পেতে তিনি সনদগুলো জাল করেছেন।

এমন অনিয়মের অভিযোগ নিয়ে ছাত্রদলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। আর কেন্দ্রীয় ছাত্রদল বলছে জালিয়াতির ঘটনা তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, গত ৮ সেপ্টেম্বর সদর উপজেলাসহ সিলেট জেলা ছাত্রদলের আধীন ৩২টি ইউনিট কমিটি অনুমোদন দেয় জেলা ছাত্রদল। এর একদিন পর জকিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। কমিটি প্রকাশের পরদিন অর্থাৎ ১০ সেপ্টেম্বর গোলাপগঞ্জ ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা সংবাদ সম্মেলন করে নানা অভিযোগ উত্থাপন করেন।

তাদের বক্তব্য, উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব ফাহিম চৌধুরী ৮ম শ্রেণি পাস করেছেন। জাল সনদের মাধ্যমে জেলা ছাত্রদল তাকে পদায়ন করেছে। এছাড়া যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুর রহমানও লেখাপড়া করেছেন মাত্র ৭ম শ্রেণি পর্যন্ত। জেলা ছাত্রদল প্রেরিত সাংগঠনিক টিমের কাছে তারা দুজন কোনো একাডেমিক সনদ জমা দেননি। আরেক যুগ্ম আহ্বায়ক মিজানুর রহমান সুজন বিবাহিত লোক।

গত ১৭ সেপ্টেম্বর এসব অভিযোগ উল্লেখ করে উপজেলা ছাত্রদলের জাহেদ আহমদ, দিদারুল ইসলাম, দুলাল আহমদ ও মাজহারুল ইসলাম স্বাক্ষরিত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে।

এছাড়া ঢাকা দক্ষিণ সরকারি কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক, ৮ জন যুগ্ম আহ্বায়ক ও ২ জন সদস্য মিলে কমিটির ১২ জন নেতা একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে।

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন