আজঃ শুক্রবার ● ২৯শে চৈত্র ১৪৩০ ● ১২ই এপ্রিল ২০২৪ ● ২রা শাওয়াল ১৪৪৫ ● বিকাল ৩:০০
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

ভুমি সেবা প্রদানের নামে অফিসে লাইভ করে গানের আসর

ফাইল ছবি

যশোরের চৌগাছায় অফিস সময়ে সেবা না দিয়ে গানের আসর বসিয়ে ফেসবুক লাইভে প্রচারে থাকার অভিযোগ উঠেছে এক ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার (নায়েব) বিরুদ্ধে।

সরকারি অফিসেই রয়েছে তার ব্যক্তিগত বাদ্যযন্ত্রের সেট। মাঝে মধ্যেই জলসা বসান তিনি। রেজাউল ইসলাম নামের ওই উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা উপজেলার ধুলিয়ানি ইউনিয়নের নায়েব হিসেবে কর্মরত।

এ বিষয়ে চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রকৌশলী এম. এনামুল হক এ প্রতিবেদককে জানান, ‘বিষয়টি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এ বিষয়ে ওই নায়েবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

২৯ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টা থেকে প্রায় ২ ঘণ্টা ধুলিয়ানি ইউনিয়ন নায়েব অফিসে তিনি এই গানের আসর বসিয়ে ‘Babu Hasan’ নামের একটি ফেসবুক আইডিতে গানের আসরের লাইভ প্রচার করা হয়।

ছড়িয়ে পড়া ৫ মিনিট ৫ সেকেন্ড এবং ২ মিনিট ১৭ সেকেন্ডের দুটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে নিজের চেয়ারে বসে রয়েছেন বাবরি চুলের একজন ব্যক্তি নায়েবের চেয়ারে বসা। পাশে লুঙ্গি পরে উদোম গায়ে বসে আছেন ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফা। এছাড়াও কয়েকজন বসে রয়েছেন। এক ব্যক্তির ঘাড়ে ঝুলানো একটি বাদ্যযন্ত্র গানের সাথে বাজাচ্ছেন, তিনিই নায়েব রেজাউল ইসলাম। অন্য একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একজন একটি গান গাচ্ছেন। বাদ্যযন্ত্র বাজছে। মাঝে মাঝে সবাই গানের সুরে সুর মেলাচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার ধুলিয়ানি ইউনিয়ন উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (নায়েব) রেজাউল ইসলাম প্রায়ই তার অফিসে অফিস চলাকালীন সময়ে গানের আসর বসিয়ে থাকেন। এসময় ওই অফিসে আসা সেবা গ্রহীতাদের বাইরে অপেক্ষা করতে বলা হয়।

মঙ্গলবার সকালে অফিসে এসেও তিনি অফিসে গানের আসর বসান। সকালে একজন সেবা গ্রহীতা রেজাউলের অফিসে তার জমির পর্চা সংক্রান্ত কাজে এলে তাকে নায়েব বলেন বাইরে ২ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে বলে তাকে বলেন, ‘দুই ঘন্টা পরে আপনার কাজ করে দেয়া হবে।’ এসময় সেখানে গানের আসরের প্রস্তুতি চলছিল। মঙ্গলবার নায়েব রেজাউল ইসলাম শুধু গানের আসর বসিয়েই ক্ষ্যান্ত হননি। এটি তিনি ‘Babu Hasan’ নামের একটি ফেসবুক আইডিতে লাইভ প্রচার করেন। দুপুর প্রায় ১টা পর্যন্ত ফেসবুক লাইভে এই গানের আসরের প্রচার চলে। পরে সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ধুলিয়ানি ইউনিয়ন উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (নায়েব) বলেন, ‘আমার বাদ্যযন্ত্রগুলো অনেকদিন পড়ে ছিল তাই একটু…….।’

তাই বলে সরকারি অফিসে বসে অফিস সময়েই ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফেসবুকে লাইভ দিয়ে? জবাবে তিনি বলেন, ‘না না এত সময় না ১০ সেকেন্ডের মত হবে….।’ বলা হয় আমরা যে ফুটেজ পেয়েছি সেখানেই তো ৭/৮ মিনিট হবে। তখন আর কোন কথা না বলে ফোন কেটে দেন তিনি।

এ বিষয়ে চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রকৌশলী এম. এনামুল হক বলেন, ‘বিষয়টি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। দ্রুতই ওই নায়েবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন