আজঃ শুক্রবার ● ২৯শে চৈত্র ১৪৩০ ● ১২ই এপ্রিল ২০২৪ ● ২রা শাওয়াল ১৪৪৫ ● বিকাল ৩:০৭
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

ফাইল ছবি

রাহাদ সুমন,বানারীপাড়া(বরিশাল)প্রতিনিধি॥ ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় বরিশালের বানারীপাড়া পৌরসভা নির্বাচনে ৩নং ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে দুঃসময়ের ত্যাগী ও পরীক্ষিত মুজিব অন্তঃপ্রাণ যুবলীগ নেতা মো. মাসুম বিল্লাহ নির্বাচন করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করে এলাকাবাসীর দোয়া কামনা করেছেন ।

মাসুম বিল্লাহ ১৯৯৯ সালে বানারীপাড়া ইউনিয়ন ইনস্টিটিউশন (পাইলট)’র ছাত্রলীগের সভাপতি ও  ২০১৪ সালে পৌর যুবলীগের আহবায়ক নির্বাচিত হন। ২০০৬ সালে উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য নির্বাচিত হন। এছাড়াও মাসুম বিল্লাহ দৈনিক সমকাল’র সুহৃদ সমাবেশের বানারীপাড়া উপজেলা শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক।  তিনি আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে রাতের আঁধারে দলীয়  পোস্টার সাঁটাতে গিয়ে পুলিশ প্রশাসন ও বিএনপি-জামায়াতের ক্যাডারদের হাতে বহুবার লাঞ্চিত হন। একই ক্যাডারদের  হাতে ২০০১ সালের পরে মারধর ও নির্যাতনের শিকার হন। এসময় তাকে মারধর করে  তমালতলা সংলগ্ন খালে ফেলে দেন।

মাসুম বিল্লাহ সামাজিক বিভিন্ন কাজের সাথে যুক্ত থাকায় নিজ ওয়ার্ডের সর্বশ্রেণী পেশার মানুষের সাথে রয়েছে তার সুগভীর সম্পর্ক। অসাম্প্রদায়িক চেতনার উদারমনা মানুষ হওয়ায় এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সাথেও রয়েছে তার গভীর সম্পর্ক। তার প্রার্থী হওয়ার খবরে এমন একজন প্রার্থীকেই বেছে নিতে এলাকার সাধারণ মানুষ এবং যুব সমাজ এক প্রকার ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। ৩নং ওয়ার্ডে মাসুম বিল্লাহর মায়ের মামা বাড়ি। ছোট বেলায় মাসুমের পিতা মারা যাবার পরে তার মাতা এখানেই থাকতেন। মাসুম বিল্লাহর জন্ম এ ৩নং ওয়ার্ডেই। এ ওয়ার্ডেই তার শ্বশুর বাড়িও। এ ওয়ার্ড থেকেই ১৯৯৯ সালে তার আপন চাচা শ্বশুর মরহুম হুমায়ুন কবির সরদার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন।

মাসুম বিল্লাহ কাউন্সিলর নির্বাচিত হতে পারলে তার ওয়ার্ডে সড়কবাতি, পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা, রাস্তা প্রশ্বস্তকরণ, মোড়ে মোড়ে ডাস্টবিন  নির্মাণসহ সুখি, সম্মৃদ্ধ, সন্ত্রাস, বাল্য বিয়ে ও মাদকমুক্ত এক আলোকিত ওয়ার্ডে রূপান্তরের প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এদিকে মাসুম বিল্লাহ নিজেকে ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে দোয়া চাওয়ায় তার সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এনিয়ে ব্যবপভাবে প্রচারণা চালাচ্ছ্নে।

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন