আজঃ রবিবার ● ৮ই বৈশাখ ১৪৩১ ● ২১শে এপ্রিল ২০২৪ ● ১১ই শাওয়াল ১৪৪৫ ● সন্ধ্যা ৬:১৫
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

ঢাকার আশপাশে সব নদীই বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে।

ঢাকার আশপাশে সব নদীই বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে। তবে আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে এসব এলাকার পানি কমতে শুরু করবে বলে জানান বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের কর্মকর্তা। বন্যার কারণে রাজধানীর আশপাশের নদীগুলোর পানি বাড়ায় তলিয়ে গেছে অনেক এলাকা। অনেক জায়গায় রাস্তাঘাটে এবং বাড়িতে পানি উঠায় ভোগান্তিতে পড়েছেন এলাকার মানুষ। ঢাকার ৭০ নম্বর ওয়ার্ড ও বাউলিয়া এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকার অবস্থা একই রকম। অনেক স্থানে চলাচল করতে হচ্ছে নৌকা দিয়ে। সমন্বিত পরিকল্পনার মাধ্যমে সুষ্ঠু সমাধান চেয়েছেন স্থানীয়রা।
 

করোনার মধ্যেই বন্যা যেন মরার উপরে খাঁড়ার ঘা হয়ে দেখা দিয়েছে। দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বন্যার প্রভাব পড়েছে ঢাকাতেও। রাজধানীর পূর্বাংশের বালু নদীর মতোই রাজধানীর পাশে তুরাগসহ অন্যান্য নদীর পানি বেড়েছে বন্যার কারণে। আর এই কারণেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে, বেড়েছে মানুষের ভোগান্তি। নৌকায় পারাপারের এমন দৃশ্য দেখে মনে হতেই পারে এটি কোনো নদী, কিন্তু না। বন্যার পানি বাড়ায় রাজধানীর পাশে বিভিন্ন এলাকায় এরকম জলাবদ্ধ অবস্থার তৈরি হয়েছে।‌

এক রিকশা চালক বলেন, চারদিকে পানি বাড়ার কারণে আমরা তেমন টিপ (ভাড়া) পাই না। ইনকাম নেই খুব খারাপ অবস্থায় আছি আমরা। এলাকাবাসী বলেন, ঘরের ভেতরে পানি ডুকে পরেছে। আমরা কি খাই, কিভাবে খাই, দেখার কেউ নেই। পানির জন্য গরুসহ অন্যান্য প্রাণী নিয়ে খুব বিপদে আছি। চারদিকে পানি তবু বিশুদ্ধ পানির অভাব। তাই বন্যার পানি দিয়েই সারতে হচ্ছে ঘরের কাজ।

একজন গৃহিণী জানালেন, আমাদের বাড়ি পানিতে তলিয়ে গেছে। অনেক কষ্ট করে পাশের বাড়িতে এসে রান্না করছি। বিশুদ্ধ পানির অনেক সমস্যা হচ্ছে। পানির অভাবে এই বন্যার পানি দিয়েই সকল কাজ করতে হচ্ছে।

ঢাকার আশপাশে বন্যা পরিস্থিতি কিছুটা স্থীতিশীল হলেও এ অবস্থা থাকবে আরও কয়েকদিন জানিয়েছেন, বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী সরদার উদয় রায়হান। তিনি বলেন, আগস্টের প্রথম সপ্তাহে পানি কমবে বলে আশা করছি। তবে নতুন করে বৃষ্টিপাত বাড়লে চলমান বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে আরও সময় লাগতে পারে।

ফেসবুকে লাইক দিন