আজঃ শনিবার ● ২৯শে আষাঢ় ১৪৩১ ● ১৩ই জুলাই ২০২৪ ● ৬ই মুহাররম ১৪৪৬ ● দুপুর ১২:৩৩
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

“হাসি মুখ” সেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষে তানজিল করলো রক্তদান

ফাইল ছবি

মেহেদী হাসানঃ যশোরের চৌগাছা একটি ছোট্ট থানা। সবুজে ঘেরা চারপাশ। এখানকার পরিবেশটাও যেমন সবুজ শ্যামলে ভরা। মানুষগুলোও তেমন মানবিক। তাইতো মানবতার সেবায় এগিয়ে যেতে এতটুকু থানায় অনেকগুলি সেচ্ছাসেবী সংগঠন আছে। তারই মধ্যে “হাসিমুখ” একটি। যার সদস্যগণ এক একটি মানবতার প্রতিক। সামান্য সংবাদ দিলেই ছুটে আসে মানবতার সেবায়। আজও ছুটে এসেছিলো তাদেরই একজন রক্ত দিতে। তার নাম তানজিল, “হাসিমুখ” সেচ্ছাসেবী সংগঠনের একজন সদস্য।
রক্তদান কারী তানজিলের উক্তি এমনই, যে কোনো সুস্থ-সবল মানুষ রক্তদান করলে রক্তদাতার স্বাস্থ্যের কোনো ক্ষতি হয় না। এমনিতেই রক্তের লোহিত কণিকাগুলো স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় চার মাস পরপর নষ্ট হয়ে যায়। তাই অকারণে নষ্ট করার চেয়ে তা স্বেচ্ছায় অন্যের জীবন বাঁচাতে দান করলে মানুষের জীবনও বাঁচানো যায়। সামান্য পরিমাণে রক্তদানের মাধ্যমে একটি জীবন বাঁচানো নিঃসন্দেহে মহৎ কাজ। এই কথা ভেবে আমি রক্তদান করি।
‘হাসি মুখ’স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সভাপতি মেহেদী হাসান বলেন, নিয়মিত রক্তদান করা একটি ভালো অভ্যাস। রক্তদান করা কোনো দুঃসাহসিক বা স্বাস্থ্যঝুঁকির কাজ নয়। বরং এর জন্য একটি সুন্দর মন থাকাই যথেষ্ট। রক্তদাতার শরীরের কোনো ক্ষতি তো হয়ই না, বরং নিয়মিত রক্তদান করলে বেশ কিছু উপকারও পাওয়া যায়। রক্তদানে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমে এবং রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রাও কমে যায়। ফলে হৃদরোগ, স্ট্রোক ইত্যাদি মারাত্মক রোগের সম্ভাবনা হ্রাস পায়। হার্ট ভালো থাকে এবং রক্তদাতা সুস্থ ও প্রাণবন্ত থাকেন। রক্তদানের সময় রক্তে নানা জীবাণুর উপস্থিতি আছে কি না, তা জানতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। ফলে রক্তদাতা জানতে পারেন তিনি কোনো সংক্রামক রোগে ভুগছেন কি না।
সাধারণ সম্পাদক শিহাব পারভেজের মতে, মানবিক, সামাজিক ও ধর্মীয়— সব দৃষ্টিকোণ থেকেই রক্তদাতা অনাবিল আনন্দ অনুভব করেন এবং সামাজিকভাবে বিশেষ মর্যাদাও পান। গ্রহীতা আর তার পরিবার চিরদিন ঋণী থাকেন তার জীবনের মূল্যবান দিনগুলো ফিরে পাবার জন্য। দাতার জন্য এটা যে কি আনন্দের, তা ভাষায় বোঝানো সম্ভব নয়।
উল্লেখ্য, “হাসিমুখ” সেচ্ছাসেবী সংগঠনটি নতুন হলেও কাজে কর্মে সংগঠনের সদস্যরা বেশ এগিয়ে। ভালো কাজে তারা কখনও পিছপা নহে। যেখানেই মানবতার বিপদের ছায়া, সেখানেই তাদের পথ চলা।

ফেসবুকে লাইক দিন