আজঃ রবিবার ● ২রা আষাঢ় ১৪৩১ ● ১৬ই জুন ২০২৪ ● ৯ই জিলহজ্জ ১৪৪৫ ● দুপুর ২:১৪
শিরোনাম

By মুক্তি বার্তা

দোয়ারাবাজারে ব্যাংক অফিসারের স্বাক্ষর জাল করে সাড়ে ৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

প্রতিকি ছবি

অনলাইন ডেস্কঃ সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে ব্যাংক অফিসারের স্বাক্ষর জাল করে অগ্রণী ব্যাংকের স্থানীয় শাখা থেকে সাড়ে ৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র। এ ঘটনায় ওই শাখায় দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের ভূমিকা নিয়েও রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও গাফিলতির অভিযোগ তুলছেন স্থানীয় সেবাগ্রহীতারা। এ নিয়ে সেবাগ্রহীতাসহ সর্বমহলে বিব্রতকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

জানা গেছে, ২৬ আগস্ট ব্যাংক কর্মকর্তার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে অগ্রণী ব্যাংকের দোয়ারাবাজার শাখা থেকে ৩টি চেকে সাড়ে ৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় একটি প্রতারক চক্র। ১৬ আগস্ট ভুয়া কাগজপত্র ও ভুয়া তথ্য দিয়ে ৩ হাজার টাকা জমা রেখে মো. ফারুক মিয়া নামে একটি হিসাব খোলা হয় শাখায়। ওই হিসাবের নমিনি দেয়া হয় ভাই পরিচয়ে মো. আরিফ মিয়া নামে তার এক সহযোগীকে।

কিন্তু বাধ্যতামূলক হলেও এনআইডি ভেরিফিকেশন ছাড়াই খোলা হয়েছে ওই হিসাব। পরদিন ১৭ আগস্ট ঢাকার সাভার থেকে ওই হিসাবে অনলাইনে জমা হয় আরও ১০ হাজার টাকা। ২৪ আগস্ট চেকবই তুলে ওই দিনই জমা হওয়া ১৩ হাজার টাকা তুলে ফেলে চক্রটি। দু’দিন পর ২৬ আগস্ট ওই হিসাব (নম্বর-০২০০১৫৬৬৮৯৬৯) থেকে পরপর তিনটি চেকে সাড়ে ৮ লাখ টাকা তুলে নিয়ে যায় প্রতারক চক্র। বাধ্যতামূলক হলেও কোনো প্রকার যাচাই-বাছাই ছাড়া একই সময়ে পরপর তিনটি চেকে সাড়ে ৮ লাখ টাকা তোলার বিষয়টি নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। এতে অগ্রণী ব্যাংক দোয়ারাবাজার শাখার দায়িত্বশীলদের ভূমিকা রহস্যজনক বলে মনে করছেন অনেকেই।

এ ঘটনায় বুধবার বিকালে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের অঞ্চল প্রধান মো. আশিক এলাহি সরেজমিন ব্যাংকের ওই শাখা পরিদর্শন করেছেন। অগ্রণী ব্যাংক দোয়ারাবাজার শাখা ব্যবস্থাপক মো. জিয়াউল ইসলাম জানান, ১৬ আগস্ট আমি ছুটিতে ছিলাম। আমার অনুপস্থিতে ওইদিন আলোচিত হিসাবটি খোলা হয়। বুধবার ব্যাংক কর্তৃক আয়োজিত ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপজেলা অডিটোরিয়ামে ছিলাম আমি। ওই ফাঁকে প্রতারক চক্র ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে টাকা তুলে নিয়ে যায়।

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন