আজঃ সোমবার ● ২৯শে চৈত্র ১৪২৭ ● ১২ই এপ্রিল ২০২১ ● ২৯শে শাবান ১৪৪২ ● সকাল ৭:০০
শিরোনাম

Byঃ মুক্তি বার্তা

প্রধানমন্ত্রীর উপহার: ২৬ মার্চ পতাকাবাহী বিমান ডানা মিলছে বরিশালের আকাশে

ফাইল ছবি

রাহাদ সুমন, বিশেষ প্রতিনিধি॥
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর প্রভাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে বরিশালের আকাশে আবার ডানা মেলছে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান। ফলে ‘সুবর্ণজয়ন্তীর’ শুভ এ ‘মাহেন্দ্রক্ষণটি’ বরিশালবাসীর জন্য সুখবর বয়ে আনছে। ২৬ মার্চ শুক্রবার সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে রাজধানী ঢাকার হযরত শাহ জালাল (রঃ) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সদ্য সংগ্রহ করা ৭৪ আসনের ‘ড্যাস এইট কিউ-৪০০’ উড়োজাহাজ নিয়ে বরিশালের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন বরিশাল-৫ (সদর} আসনের সংসদ সদস্য ও পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম। এ উপলক্ষে একই ফ্লাইটে বরিশালে আসছেন বরিশাল-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মো. মনিরুল ইসলাম মনি ও  বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু সালেহ মোস্তফা কামালও । বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য এবং মন্ত্রী পদ মর্যাদার পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন  পরীবিক্ষণ কমিটির আহবায়ক  আলহাজ্ব আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ বরিশালে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান ফ্লাইট চালুর দাবি জানিয়ে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি পাঠালে বিষয়টি বিমান চলাচল মন্ত্রণালয় ও বিমান কর্তৃপক্ষকে দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের নির্দেশনার প্রেক্ষিতে  বাংলাদেশ বিমানের নবনিযুক্ত ববস্থাপনা পরিচালক আবু সালেহ মোস্তফা কামাল সংশ্লিষ্ট পরিচালক ও কর্মতর্দাদের নিয়ে বৈঠক করে ২৬ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিন থেকে বরিশালে প্রতিদিন নিয়মিত ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। প্রসঙ্গত  করোনা সংকটের কারণে গত বছর ২১ মার্চ থেকে সারা দেশের সাথে বরিশালেও ফ্লাইট পরিচালন বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ বিমান। পরবর্তীতে গত বছর জুনের প্রথম সপ্তাহ থেকে বরিশাল, রাজশাহী ও কক্সবাজার বাদে অন্যসব বিভাগে পরিসেবা চালু করে বিমান। তবে বেসরকারী ‘নভোএয়ার’ ও ‘ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স’ বরিশালে জুনের প্রথমভাগ থেকেই দিনে একটি এবং পরে দুটি করে ফ্লাইট চালু করে বরিশাল সেক্টরে। তবে বেসরকারি  এ বিমানে যাত্রীদের বিভিন্ন অজুহাতে অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে হয়েছে। অপরদিকে বিমান আগস্টের মধ্যে কক্সবাজার ও যশোরে ফ্লাইট চালু করলেও বরিশাল ও রাজশাহীর ব্যপারে কোন ইতিবাচক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনি। উড়োজাহাজ সংকটের কথা বলে প্রথমে শীতকালীন সময়সূচিতে ও পরে মার্চের শেষভাগ থেকে গ্রীষ্মকালীন সময়সূচিতে বরিশালসহ সব বিভাগে ফ্লাইট চালু করার কথা বলে আসছিল বিমানের দায়িত্বশীল মহল। ইতোমধ্যে বিমান বহরে থাকা দুটি ‘ড্যাস-৮ কিউ-৪০০’ উড়োজাহাজের সাথে কানাডা থেকে নতুন আরও ৩টি জাহাজ যুক্ত হয়েছে। ফলে বিমান বহরে অভ্যন্তরীণ যোগাযোগে ৫টি উড়োজাহাজ থাকলেও রহস্যজনক কারণে বরিশাল ও রাজশাহীতে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান ফ্লাইট বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল সম্প্রতি। এমনকি এ দু’টি বিভাগকে বাদ দিয়েই গ্রীষ্মকালীন সময়সূচিও তৈরী করেছিল বিমান। অবশেষে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান চালুর মধ্য দিয়ে বরিশালবাসীর দাবি পূরণ হচ্ছে।

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন