আজঃ শনিবার ● ২৫শে বৈশাখ ১৪২৮ ● ৮ই মে ২০২১ ● ২৫শে রমযান ১৪৪২ ● সকাল ১০:২৫
শিরোনাম

By: মুক্তি বার্তা

চৌগাছায় বালিশ চাপা দিয়ে স্ত্রী হত্যা, মুয়াজ্জিন স্বামী ও শ্বাশুড়ি গ্রেপ্তার

চৌগাছা প্রতিনিধিঃ যশোরের চৌগাছায় সুরাইয়া আক্তার আয়েশা (১৮) নামে এক গৃহবধূকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে স্বামী হাফেজ জুয়েল রানা ইমরান (২২)। সুরাইয়া যশোর সদর উপজেলার দিয়াপাড়া গ্রামের ইলিয়াস হোসেনের মেয়ে। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে। এঘটনায় সুরাইয়ার স্বামী হাফেজ জুয়েল রানা ইমরান ও তার মা বিলকিস বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে বলে নিশ্চিত করেছেন চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ।

রোববার দিবাগত রাত ১১টার দিকে চৌগাছা পৌরসভার মাঠপাড়া গ্রামে নিজ ঘরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটায় হাফেজ জুয়েল রানা ইমরান।

জুয়েল রানা ইমরান চৌগাছা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের মাঠপাড়া গ্রামের হাসানুর রহমানের ছেলে। তাদের গ্রামের বাড়ি ঝিকরগাছা উপজেলার গুলবাগপুর গ্রামে। গত দুই বছর যাবৎ তারা মাঠপাড়ায় স্থানীয় শিল্পপতি হাসানুজ্জামান রাহিনের তৈরি করে দেয়া বাড়িতে বসবাস করে।

সে কয়েকমাস আগে চৌগাছা উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদে কিছুদিন মুয়াজ্জিনের দায়িত্ব পালন করে। সেখানে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মুয়াজ্জিনের দায়িত্ব নেয়ায় চারদিন পরেই তাকে বাদ দেয়া হয়। বর্তমানে সে রাজমিস্ত্রির সহকারী হিসেবে কাজ করতো।

নিহত সুরাইয়া’র মা কুলসুম বেগম চৌগাছা থানায় অবস্থানকালে এ প্রবিবেদককে জানান, এক বছর আগে তার মেয়ের বিয়ে হয়। মেয়েদের পারিবারিক কলহ ছিল। তিনি বলেন রোববার ইফতারের ১০ মিনিট আগেও মেয়ের সাথে তার মোবাইল ফোনে কথা হয়। তখন জামাই আসলে কথা বলিয়ে দেবে বলে কথা শেষ করে ফোন রেখে দেয় মেয়ে। এরপর প্রতিবেশিদের কাছে সংবাদ পেয়ে তারা রাত সাড়ে তিনটার দিকে পৌছান। তিনি কাঁদতে কাঁদতে বলেন যখন আমার মা’কে (মেয়ে সুরাইয়া) আঘাত করেছে তখন মা (মেয়ে) আমার কাছে ফোন করেছিল। আমি রিসিভও করেছিলাম। কিন্ত হ্যালো হ্যালো করেও কোন সাড়া পাইনি। তখনও মনে হয়নি আমার কলিজার টুকরাকে এভাবে হত্যা করা হচ্ছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই।

চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন সংবাদ পেয়ে পুলিশ রাত দুইটার দিকে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নেয়। সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন ইমরান তাকে হত্যার পর ঘরের বাইরে বেরিয়ে এসে স্ত্রী আত্মহত্যা করেছে বলে চিৎকার করে লোক ডাকতে থাকে ইমরান। ঘরে গিয়ে গিয়ে সুরাইয়ার মৃতদেহ দেখ স্থানীয়দের সন্দেহ হলে তারা থানায় সংবাদ দিলে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। তিনি বলেন প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করা হয়। ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন এ ঘটনায় স্বামী জুয়েল রানা ইমরান এবং তার মা বিলকিস বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তিনি আরোও জানান এ বিষয়ে হত্যা মামলার প্রক্রিয়াধীন।

মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন