আজঃ রবিবার ● ১০ই শ্রাবণ ১৪২৮ ● ২৫শে জুলাই ২০২১ ● ১৪ই জিলহজ্জ ১৪৪২ ● বিকাল ৫:৩৭
শিরোনাম

Byঃ মুক্তি বার্তা

অপহরণ নাকি নিখোজ? শিক্ষক স্বামীর সন্ধানে চৌগাছায় স্ত্রীর জিডি

ফাইল ছবি

চৌগাছা প্রতিনিধি: যশোরের চৌগাছায় নামাজ পড়তে গিয়ে নিখেঁাজ হয়েছেন হাবিবুর রহমান (৪০) নামের এক প্রধান শিক্ষক।  তিনি উপজেলার জগদিশপুর ইউনিয়নের দক্ষিণসাগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং একই গ্রামের সাদু মিয়ার ছেলে। এ বিষয়ে ওই শিক্ষকের স্ত্রী তানজিলা বেগম স্বামীর সন্ধান চেয়ে চৌগাছা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেছেন। ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আতিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগ পেয়েছি প্রাথমিক তদন্ত চলছে।

সোমবার (১৪ জুন) রাত ৮ দিকে মসজিদে এশার নামাজ পড়তে গিয়ে তিনি আর বাড়ি ফেরেননি বলে জানিয়েছেন নিখেঁাজ প্রধান শিক্ষকের স্বজনরা।

নিখোঁজ শিক্ষক হাবিবুর রহমানের স্ত্রী তানজিলা বেগম জানান সোমবার (১৪জুন) রাত ৮ টার দিকে মসজিদে এশার নামাজ পড়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। এর পরে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় মোবাইল বাড়িতে রেখে যান হাবিবুর। বাড়ি ফিরে না আসলে মসজিদের অন্য মুসল্লিদের কাছে খোঁজ নিলে তারা বলেন, হাবিবুর নামাজ পড়তে যাননি। এর পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন তিনি।

হাবিবুর রহমানের স্ত্রী তানঞ্জিলা বেগমের দাবী তার স্বামীর সাথে কারো দ্বন্দ্ব নেই। তিনি জানান, ‘উপজেলার মাড়ুয়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে রকির চাকরীরর জন্য চারাবাড়ি গ্রামের আব্দুলের সাথে চার লাখ টাকা লেনদেন হয়। এই টাকার মৌখিক স্বাক্ষী ছিল আমার স্বামী। রকির চাকরী না হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে প্রায় তাকে চিন্তিত থাকতে দেখতাম। আমার সন্দেহ হচ্ছে টাকার জন্য আমার স্বামীকে অপহরণ করা হয়েছে কিনা। এ ঘটনায় তানজিলা বেগম স্বামীর সন্ধান চেয়ে (১৫ জুন) মঙ্গলবার চৌগাছা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন। যার নং ৬১৭।

জগদীশপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক তবিবর রহমান খান বলেন, আমি ঘটনা জানতে পেরে শিক্ষক হাবিবুর রহমানের বাড়িতে গিয়েছিলাম। পরিবারকে থানায় জিডি করার পরামর্শ দিয়েছি।

চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন, নিখেঁাজ পরিবার থানায় জিডি করেছেন। জিডির সূত্র ধরে আমরা তাকে উদ্ধারে কাজ করছি।

 

ফেসবুকে লাইক দিন