আজঃ রবিবার ● ১০ই শ্রাবণ ১৪২৮ ● ২৫শে জুলাই ২০২১ ● ১৪ই জিলহজ্জ ১৪৪২ ● সন্ধ্যা ৭:২৯
শিরোনাম

By: মুক্তি বার্তা

চৌগাছা পৌরসভায় ৭দিনের কঠোর বিধি-নিষেধ

ফাইল ছবি

চৌগাছা প্রতিনিধি:
যশোরের চৌগাছা উপজেলার চৌগাছা পৌরসভায় (১৮ জুন থেকে ২৪ জুন) ৭দিনের কঠোর বিধিনিষেধ ঘোষনা করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।
বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভা শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলি এনামুল হক স্বাক্ষরিত ০৫.৪৪.৪১১১.০০০.২৯.০০১.২১ নং স্বারকে জনস্বার্থে এবিধিনিষেধ আরোপ করা হয়।
১২টি বিধি-নিষেধের মধ্যে আছে-
জরুরি রোগী,জরুরি পন্য বহনকারি এবং জরুরি সেবা দান ব্যাতিত অভ্যন্তরীন সকল রুটে গনপরিবহন চলাচল বন্ধ। হাইওয়ে রোডে আন্ত জেলা গনপরিবহন সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করতে পারলেও অভ্যন্তরীন যাত্রী পরিবহন করতে পারবে না।
পৌরসভার ট্রেড লাইসেন্সধারী কাচা বাজার ফুল ও ফলের দোকান নির্ধারিত উন্মুক্ত স্থানে এবং নিত্য প্রয়োজনীয়  পন্যের দোকান স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। এছাড়া সকল দোকানপাট,শপিংমল, বিপনী বিতান,চায়ের দোকান বন্ধ থাকবে তবে বৈধ লাইসেন্সধারী ঔষুধের দোকান সার্বক্ষনিক খোলা থাকবে।
আইন শৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা,বিভিন্ন গন মাধ্যম এবং স্থানীয় সরকারের অধীন অফিসসমুহ এবং তাদের কর্মচারি ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতাবহিভর্’ত থাকবে। খাবারের হোটেল সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খাবার সরবরাহ ও বিক্রয় করাগেলেও দোকানে বসে খাওয়া যাবে না।
অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবে না এবং সকলকে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে।
মটর সাইকেলে চালক ব্যাতিত অন্য কোনো আরোহি চলাচল করতে পারবে না। এবং সর্ব প্রকার ইজিবাইক, অটোরিক্সা,ভ্যান,নসিমন,করিমন,অঅলমসাধূ সবোচ্চ ২জন যাত্রী পরিবহন করতে পারবে। শিল্পকারখানা স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু থাকবে এবং শ্রমিকদের স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান তাদের নিজস্ব পরিবহনে আনানেওয়া করবে।
সকল বিনোদন কেন্দ্র,পর্যটনস্থল বন্ধ থাকবে। সকল জনসমাবেশ বন্ধ থাকবে।
জুম্মার নামাজসহ প্রতি ওয়াক্ত নামাজে সর্বোচ্চ ২০ জন বাড়ি থেকে ওজু গোসল করে সুন্নত নামাজ আদায় করে মসজিদে আসবেন। অন্যান্য ধর্মীয় উপসনালয়ে সমসংখ্যক ব্যক্তি স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপসনা করতে পারবেন।
সকল জরুরি নির্মান কাজ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলমান থাকবে এবং এ সংক্রান্ত পন্য পরিবহন বিধিনিষেধের আওতামুক্ত থাকবে।
সময়ে সময়ে জারিকৃত এ সংক্রান্ত সকল বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে।
এদিন উপজেলা করোনা মহামারি প্রতিরোধ কমটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলি এনামুল হকের সভাপতিত্বে সভায় সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.লুৎফুন্নাহার লাকি বলেন, করোনার দ্বিতীয় ওয়েভ উপজেলাতে মারাত্নক প্রভাব ফেলেছে। উপজেলাতে গত মার্চ মাসে ৩১ জন রোগীর স্যাম্পল পরীক্ষায় ৫, এপ্রিলে ১৩০ জনে ২৮, মে মাসে ৭০ জনের মধ্যে ১৩ জন করোনা পজেটিভ হয়েছিলেন। কিন্তু জুন মাসে (১৫ জুন) ১৪০ জন রোগীর মধ্যে ৫৪ জন করোনা পজেটিভ হয়েছ। সে হিসেবে করোনা পজিটিভিটির হার ৩৮.৫% । তিনি উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জোর তাগিদ দেন। অন্যদিকে এ মাসেই করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪জন জানালেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও করোনা প্রতিরোধ কমিটির সাধারন সম্পাদক ডা.লুৎফুন্নাহার লাকি।
কিন্তু স্থানীয়রা বলছেন এছাড়াও করোনা উপসর্গ নিয়ে আরো ৩ জন মারাগেছেন। মৃতদের মধ্যে কেউ কেউ উপজেলার বাইরে আক্রন্ত হয়ে মারা গেছেন। সব মিলিয়ে এমাসেই মারা গেছেন ৮ জন।
এপ্রিলের ১৯ তারিখ থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত চৌগাছা পৌরসভাতেই করোনা পজেটিভ হয়েছেন ২৩ জন। এছাড়া ফুলসারা ৫,পাশাপোলে ৩,ধূলিয়ানী ৮, সিংহঝুলি ৭, চৌগাছা সদর ২, নারায়নপুর ২,স্বরুপদাহ ৫, হাকিমপুর ৬ এবং সুখপুকুরিয়া ইউনিয়নে ৬ জন করোনা পজেটিভ হয়েছেন।
এদিনের সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ, চৌগাছা পৌর মেয়র নূর উদ্দিন আল মামুন হিমেল, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইসতিয়াক আহম্মদ। অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান, সাধারন সম্পাদক মেহেদী মাসুদ চৌধূরী, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজনিন নাহার পপি, উপজেলা প্রকৌশলি মনসুর রহমান, চৌগাছা প্রেসক্লাবের সভাপতি জিয়াউর রহমান রিন্টু,পৌর কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র ১ আনিচুর রহমান,চৌগাছা বাজার ব্যাবসায়িক সমিতির যুগ্ম-সম্পাদক আজিজুর রহমান এ্যাডমিরাল প্রমুখ।
মুবার্তা/এস/ই

ফেসবুকে লাইক দিন