আজঃ বুধবার ● ২৬শে মাঘ ১৪২৯ ● ৮ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ● ১৫ই রজব ১৪৪৪ ● রাত ১২:৫২
শিরোনাম

By: মুক্তি বার্তা

চৌগাছায় রবি মৌসুমি বিনামূল্যে ধানের বীজ ও সার পাচ্ছেন ৭২৩০ পেলেন কৃষক

ফাইল ছবি

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ যশোরের চৌগাছা উপজেলায়  রবি মৌসুমী ৭২৩০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষককে বিনা মূল্যে দেওয়া হচ্ছে উফশী ও হাইব্রিড জাতের ধান বীজ ও রাসায়নিক সার। চলতি মৌসুমে উন্নত জাত ও নতুন উদ্ভাবিত ফসল আবাদে উৎসাহিত করতে কৃষকদের এ প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার।

চৌগাছা উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি রবি ২০২২-২৩ মৌসুমে প্রণোদনা কর্মসুচির আওতায় উপজেলার পৌরসভা সহ ১১টি ইউনিয়ন ও  ৭২৩০ জন কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে উফশী ও হাইব্রিড জাতের ধান বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ করা হবে।
এরমধ্যে ৪ হাজার ৮০৫ জন কৃষককে উফশী জাতের বোরো বীজ ও সার এবং ২ হাজার ৪২৫ জন কৃষককে হাইব্রিড জাতের ধানের বীজ দেওয়া হয়েছে।
ইতোমধ্যে ইউনিয়ন ও পৌরসভা ভিত্তিক কৃষকদের তালিকা প্রস্তুত করে দেওয়া শুরু হয়েছে। এর মধ্যে ফুলসারা ইউনিয়নে উফশী জাত ৫৫০ জন ও হাইব্রিড জাত পায়েছেন, ২৯০ জন কৃষক, পাশাপোল ইউনিয়নে উফশী জাত ৫২০ জন ও হাইব্রিড জাত ২৯০ জন, সিংহঝুলী ইউনিয়নে উফশী জাত ৩৬০ জন ও হাইব্রিড জাত পাবেন ১৬০ জন কৃষক। ধূলিয়ানী ইউনিয়নে উফশী জাত ৩২০ জন ও হাইব্রিড জাত পায়েছেন, ১৩০ জন কৃষক, চৌগাছা ইউনিয়নে উফশী জাত ১৫০ জন ও হাইব্রিড জাত পায়েছেন, ৩৬০ জন কৃষক। পাতিবিলা ইউনিয়নের উফশী জাত ১৩৫ ও হাইব্রিড জাত পাবেন ২৬০ জন কৃষক। জগদীশপুর ইউনিয়নে উফশী জাত ১৫০ ও হাইব্রিড জাত পাবেন ৩৬০ জন কৃষক। হাকিমপুর ইউনিয়নে উফশী জাত ৪০০ ও হাইব্রিড জাত পাবেন ২২০ জন কৃষক। স্বরুপদাহ ইউনিয়নে উফশী জাত ২৪০ ও হাইব্রিড জাত পাবেন ৪৮০ জন কৃষক। নারায়নপুর ইউনিয়নে উফশী জাত ২৫০ ও হাইব্রিড জাত পাবেন ৩৮০ জন কৃষক। সুখপুকুরিয়া ইউনিয়নে উফশী জাত ৩০০ ও হাইব্রিড জাত পাবেন ৫২০ জন কৃষক। এছাড়া পৌরসভায় উফশী জাত ১১০ জন ও হাইব্রিড জাত পাবেন ২৯৫ জন কৃষক।

জনপ্রতি কৃষককে উফশী জাতের ধান বীজ ৫ কেজি, ১০ কেজি করে ডিএপি ও এমওপি সার এবং প্রতিজন কৃষককে ২ কেজি করে হাইব্রিড জাতের ধান বীজ প্রণোদনা হিসাবে দেওয়া হবে।
চৌগাছা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সমরেন বিশ্বাস বলেন, সরকার কৃষকদেরকে উন্নত জাত এবং নতুন নতুন উদ্ভাবিত জাতের ফসল চাষাবাদে উৎসাহিত করতে প্রণোদনা কর্মসুচির আওতায় এসব বীজ ও রাসায়নিক সার সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। যাতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকরা সহজেই স্বল্প সময়ে ও কম খরচে ধান উৎপাদন করতে পারেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইরুফা সুলতানা, (ভূমি) সরকারি কমিশনার গুন্দন বিশ্বাস, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত কৃষি অফিসার মুশাব্বির হোসেন, কৃষি সম্প্রসন অফিস ার মিজানুর রহমান, উপসহকারী কৃষি অফিসার সাইফুল ইসলাম, তাপস অধিকার, রাশেদুল ইসলাম, বিশ্বজিৎ বিশ্বাস প্রমুখ। কৃষকরা ধানের বীজ ও সার খুব খুশি।

ফেসবুকে লাইক দিন